1. admin@dainikdesherkontho.com : admin :
সোমবার, ২১ জুন ২০২১, ০১:৩৬ পূর্বাহ্ন

দুর্ধর্ষ চোর চক্রের ৫ সদস্য আটক

দৈনিক দেশের কন্ঠ
  • Update Time : মঙ্গলবার, ৩০ মার্চ, ২০২১
  • ৪৫ Time View

চাঁদপুর প্রতিনিধি | চুরি-ই ওদের নেশা এবং চুরি-ই ওদের পেশা। তাই চাঁদপুর শহরের অভিজাত কয়েকটি বাসায় দিয়েছিল হানা। কিন্তু শেষ রক্ষা হয়নি। ঘটনা চাঁদপুরের হলেও আন্তঃজেলা দুর্ধর্ষ চোর চক্রের এমনই পাঁচ সদস্যকে রাজধানী ঢাকার যাত্রাবাড়ি থেকে গ্রেফতার করেছে সদর মডেল থানা পুলিশ।

মঙ্গলবার (৩০ মার্চ) বিকেলে সদর মডেল থানায় চোর চক্রের পরিচয় এবং তাদের গ্রেফতারের বিষয় সংবাদ সম্মেলন করে প্রকাশ করেন চাঁদপুর সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার স্নিগ্ধা সরকার।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, চাঁদপুর শহরে ইদানিং দিনে দুপুরে বেশ কয়েকটি বাসা বাড়িতে চুরির ঘটনা ঘটেছে। তারই সূত্র ধরে চোর চক্রকে ধরতে চাঁদপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ আবদুর রশীদকে নির্দেশ দেন জেলা পুলিশ সুপার মিলন মাহমুদ। সেই নির্দেশ অনুযায়ী পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) সুজন কান্তি বড়ুয়া ও উপ পরিদর্শক রাশেদুজ্জামান তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে চোর চক্রের সদস্যদের সনাক্ত করেন।

পরে পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) সুজন কান্তি বড়ুয়া ও উপ পরিদর্শক রাশেদুজ্জামান এবং আওলাদ হোসেন সঙ্গীয় সদস্যদের নিয়ে ২৮ মার্চ রাতে ঢাকার যাত্রাবাড়ি থানার করাটিতোলা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ৫ জনকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। চুরির ঘটনায় গত ১৫ ফেব্রুয়ারি ও আজ ৩০ মার্চ চাঁদপুর সদর মডেল থানায় দুটি মামলা দায়ের করা হয়।

গত ২৮ ও ২৯ মার্চ রাজধানীর যাত্রাবাড়ি থানা পুলিশের সহায়তায় তাদেরকে আটক করে চাঁদপুর সদর মডেল থানায় নিয়ে আসে পুলিশ। আটক চোর চক্রের সদস্যরা হলেন- যাত্রাবাড়ি করাটিতোলা এলাকার হাড্ডি হিমু (২২), আরিফ হোসেন (২০), কামাল খন্দকার (১৯), নারায়নগঞ্জ জেলার উদ্দমগঞ্জ সোনারগাঁও এলাকার সিফাত আহমেদ রাসেল (২৩), কুমিল্লা দাউদকান্দি নয়ন নগর এলাকার ইমন হোসেন (২০)।

স্নিগ্ধা সরকার আরও বলেন, এই চোর চক্রের মূল হোতা কিশোরগঞ্জের বাজিতপুর থানার বলিয়াদী গ্রামের রফিকুল হাসানের ছেলে ইফতেখারুল হাসান সাঈদকে (২৪) যাত্রাবাড়ি থানা পুলিশ আটক করে। বর্তমানে জেল হাজতে রয়েছেন সাঈদ।
তিনি বলেন, গত ২৯ মার্চ রাতে চাঁদপুর শহরের পালকী হোটেল থেকে আসামি কালাম ও আরিফকে আটক করা হয়। পরে তাদের দেয়া তথ্য অনুযায়ী হিমু, রাসেল ও ইমনকে ঢাকা থেকে আটক করা হয়। আরিফ ও ইমনের বিরুদ্ধে চাঁদপুর সদর মডেল থানায় ডিএমপির বিভিন্ন থানায় ৫টি এবং হাড্ডি হিমুর বিরুদ্ধে ৭টি মামলা রয়েছে। আমাদের অভিযান অব্যাহত থাকবে।
এদিকে, চুরির ঘটনার শিকার ভুক্তভোগী চাঁদপুর শহরের মমিনপাড়া এলাকার সালাউদ্দিন জানান, গত ৭ ফেব্রুয়ারি হাজেরা নিবাসের চতুর্থ তলার ভাড়া বাসা থেকে তার ১৮ ভরি সোনা, নগদ আড়াই লক্ষ টাকা ও ২টি ক্রেডিট কার্ড নিয়ে যায় চোর চক্র।

শহরের জোড়পুকুর পাড় এলাকার পারভেজ ভূঁইয়া রাজু জানায়, গত ২৫ ফেব্রুয়ারি সিরাজ খানের পঞ্চম তলা ভাড়া বাসা থেকে ১০ ভরি সোনা ও নগদ ৫০ হাজার টাকা নিয়ে যায় চোর চক্র।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন চাঁদপুর সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ আবদুর রশিদ, পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) সুজন কান্তি বড়ুয়া, পুলিশ পরিদর্শক (ইন্টেলিজেন্স) মো. মনির আহাম্মদ, উপ-পরিদর্শক মো. রাশেদুজ্জামানসহ অন্য পুলিশ সদস্যরা।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: FT It