1. admin@dainikdesherkontho.com : admin :
রবিবার, ২০ জুন ২০২১, ০৯:৫০ পূর্বাহ্ন

লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে রোগীর শরীরে “এ পজিটিভ” রক্তের পরিবর্তে “বি পজিটিভ রক্ত দেওয়ার প্রতিবাদে মানববন্ধন

দৈনিক দেশের কন্ঠ
  • Update Time : রবিবার, ২১ মার্চ, ২০২১
  • ৯৯ Time View

রিয়াজুল হক সাগর, রংপুর ব্যুরো প্রধানঃ- লালমনিরহাট সদর হাসপাতালের গাইনী বিভাগে চিকিৎসারত রহিমা বেগম নামের এক রোগীর শরীরে “এ পজিটিভ” রক্তের পরিবর্তে “বি পজিটিভ’’ রক্ত দেওয়ায় অভিযোগ তুলে মানববন্ধন করেছে বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন।

শনিবার (২০ মার্চ) সকালে সদর হাসপাতালের সামনে তিনটি সামাজিক সংগঠনের উদ্যেগে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত করেন । উক্ত মানববন্ধনে রোগীর স্বজন ও সামাজিক সংগঠনের নেতারা এ ঘটনায় প্যাথলজি বিভাগের ইনচার্জ জাহিদুল ইসলামকে দায়ী করেন এবং এ ঘটনার সাথে জড়িত সকলের শাস্তির দাবি জানান।
মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, একেরপর এক হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ভূল করে রোগীর শরীরে অন্য গ্রুপের রক্ত দিয়ে দিচ্ছেন। যার ফলে রোগীদের শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়েছে। গেল ১৫ মার্চ লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে দুড়াকুটি গ্রামের রব্বানী ইসলামের স্ত্রী রহিমা বেগম(২৭) শরীরের “এ পজিটিভ” রক্তের পরিবর্তে “বি পজিটিভ’’ রক্ত দিয়ে দেন। বিষয়টি প্রকাশ হয়ে পড়লে জেলা জুড়ে শুরু হয় তোলপাড়। এমন একটি ন্যাক্কারজনক ঘটনা ঘটলেও গেল চার দিনে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ দোষীদের বিরুদ্ধে কোনো পদক্ষেপ গ্রহন করেনি। এ ঘটনায় প্যাথলজি বিভাগের ইনচার্জ জাহিদুল ইসলামসহ জড়িত সকলের শাস্তির দাবি জানাই।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে রোগীর স্বামী রব্বানী ইসলাম জানান, তার স্ত্রী রহিমা বেগমের অবস্থা বর্তমানে আশঙ্কাজনক অবস্থায় রয়েছে। বর্তমানে তিনি রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছে। ভূল করেও হাসপাতালের কেউ খোঁজখবর নিচ্ছেন না।

লালমনিরহাট সদর হাসপাতালের প্যাথলজি বিভাগের ইনচার্জ জাহিদুল ইসলাম জানান, প্যাথলজি বিভাগের সহকারী মোজাফ্ফরের ভুলের কারনেই এ ঘটনা ঘটেছে।
এ কথার সূত্র ধরে প্যাথলজি বিভাগের সহকারী মোজাফ্ফরের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, প্যাথলজি বিভাগের ইনচার্জ এ বিষয়টি ভালো জানেন।

লালমনিরহাট সদর হাসপাতালের তত্বাবধায়ক অসুস্থ থাকায় তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

এ বিষয়ে লালমনিরহাট সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার মঞ্জুর মোর্শেদ দোলন বলেন, এ ঘটনায় শনিবার(২০ মার্চ) সিনিয়র কনসাল্টেন্ট (সার্জারী) ডা. আব্দুল হাদীকে প্রধান করেন তিন সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে । আগামী তিন কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়ার জন্য বলা হয়েছে। তদন্ত প্রতিবেদন আসার পরেই প্রকৃত ঘটনা জানা যাবে।

উল্লেখ্য, লালমনিরহাট সদর উপজেলার দুড়াকুটি গ্রামের রব্বানী ইসলামের স্ত্রী রহিমা বেগম(২৭) শারিরিক রক্তক্ষরণ জনিত কারনে গত ১৪ মার্চ লালমনিরহাট সদর হাসপাতালের গাইনি বিভাগে ভর্তি হন। ওই দিনই তাকে রক্ত দিতে হবে বলে জানান কর্তৃপক্ষ।

প্যাথলজি বিভাগে রহিমা বেগমের রক্ত পরীক্ষা করে জানানো হয় তার রক্তের গ্রæপ “বি পজিটিভ”। এরইমাঝে সাকলাইন সোহান নামের একজন বি পজিটিভ রক্তদাতা এক ব্যাগ রক্ত দান করেন। তারপর ওই রক্ত রোগীর শরীরে প্রবেশ করার পরেই রোগী অস্থিরতা রোগীর শারিরিক অবস্থার অবনতি ঘটতে থাকলে ১৮ মার্চ রোগীকে রেফার করা হয় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: FT It