1. admin@dainikdesherkontho.com : admin :
বৃহস্পতিবার, ১৭ জুন ২০২১, ১০:২৬ পূর্বাহ্ন

স্ত্রীকে হত্যা করে সড়ক দুর্ঘটনার নাটক সাজাল ঘাতক স্বামী!

দৈনিক দেশের কন্ঠ
  • Update Time : শনিবার, ৩ এপ্রিল, ২০২১
  • ৩৩ Time View

বিশেষ প্রতিনিধি | রাজধানীতে হত্যার পর পরিকল্পিতভাবে সড়ক দুর্ঘটনার নাটক সাজানোর অভিযোগ উঠেছে। ঝিলিক নামে ওই নারীর পরিবারের অভিযোগ নির্যাতন করে ঝিলিককে হত্যা করেছে স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজন। এদিকে এ ঘটনায় পুলিশ স্বামী মিশুসহ ২ জনকে হেফাজতে নিয়েছে। উদ্ধার হয়েছে সিসিটিভি ফুটেজ।

সড়ক দুর্ঘটনায় মৃত্যুর সূত্র ধরে গুলশানে অর্পিতা ঝিলিকের বাসায় যায় পুলিশ। সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যায়, ঝিলিকের নিথর দেহ চার জন মিলে সিঁড়ি দিয়ে নামাচ্ছে।
এর পরের ঘটনা হাতির ঝিলের। শনিবার (০৩ এপ্রিল) রাজধানীর হাতিরঝিলের আমবাগান সড়কের ডিভাইডারের ওপর দুর্ঘটনায় পড়া একটি প্রাইভেটকার থেকে উদ্ধার করা হয় এক নারীর লাশ। ঘটনাস্থলে পুলিশ গেলে চালকের আসনে থাকা স্বামী জানায়, অসুস্থ স্ত্রীকে নিয়ে হাসপাতালের যাওয়ার পথে সড়ক দুর্ঘটনায় স্ত্রী মারা গেছেন। পরে মৃতদেহের সুরতহাল রিপোর্টে, মরদেহের বিভিন্ন স্থানে নতুন ও পুরাতন গভীর আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়। তাৎক্ষণিকভাবে পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হেফাজতে নেয় স্বামী মিশুকে। চলছে মৃত্যুর রহস্য উদঘাটনের চেষ্টা।

পুলিশ জানায়, হাতিরঝিল থানার পুলিশ গিয়ে দেখে গাড়ির পেছনের সিটে একটি মরদেহ। সেটির বিভিন্ন স্থানে ক্ষত ছিল। বিষয়টি নিয়ে তদন্ত চলছে।

এদিকে, আদরের সন্তানকে হারিয়ে মায়ের আহাজারিতে যেন কেঁপে উঠছে এলাকা। মায়ের অভিযোগ পরিকল্পিতভাবে খুন করা হয়েছে তার সন্তান অর্পিতা ঝিলিককে।
তিনি বলেন, আমার মেয়ের মুখে অনেক ক্ষত ছিল। আমি দেখেই বুঝেছি তারা আমার মেয়েকে মেরে ফেলেছে। তারা বড়লোক বলে আজ আমার মেয়েকে এভাবে হত্যা করেছে।

পরিবার বলছে, ২০১৮ সালে ভালোবেসে উচ্চবিত্ত ঘরের ছেলে মিশুকে বিয়ে করে অর্পিতা। কিন্তু বিয়ের পর থেকে যৌতুকসহ বিভিন্ন ইস্যুতে নির্যাতন করে আসছিল শ্বশুরবাড়ির লোকজন। তাদের ঘরে ৮ মাসের একটি ছেলে শিশুও রয়েছে।
ঝিলিকের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রাখা হয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: FT It